আফগানিস্তান ক্রিকেট বোর্ড অর্থ সংকটে

প্রকাশিত: ১০:০৬ পূর্বাহ্ণ, জুলাই ৩১, ২০২০

আফগানিস্তান ক্রিকেট বোর্ড অর্থ সংকটে

করোনাভাইরাস মহামারির কারণে চরম অর্থনৈতিক সংকটে পড়েছে আফগানিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (এসিবি)। বোর্ডের কার্যক্রম চালিয়ে নেওয়ার জন্য আন্তর্জাতিক ক্রিকেট সংস্থার কাছে অর্থসহায়তা চেয়েছে তারা।

ক্রিকবাজকে এ খবরের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন এসিবি’র অন্তবর্তীকালীন প্রধান নির্বাহী নাজিম জার আব্দুলরাহিমজাই। জানিয়েছে, বোর্ডের কার্যক্রম চালিয়ে নেওয়ার জন্য আইসিসি’র কাছে ১০ লাখ ডলারের অনুদান চেয়েছেন তারা।

করোনাভাইরাসের কারণে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ ও এশিয়া কাপ স্থগিত হয়ে যাওয়ায় বড় আর্থিক ক্ষতির মুখে পড়েছে আফগানিস্তান ক্রিকেট। এ দুইটি ইভেন্টে অংশ নিলে যে রাজস্ব পাওয়ার কথা সেটিও এখন পাওয়া হচ্ছে না।

তবে অংশগ্রহণ বাবদ যে অর্থ আইসিসি থেকে দেওয়া হয় তা নির্দিষ্ট সময়েই বোর্ডগুলো পেয়ে যায়। কিন্তু তহবিল শূন্য হয়ে যাওয়ায় সেই সময় পর্যন্ত অপেক্ষা করতে পারছে না এসিবি।

এর মধ্যে প্রধান দুই স্পনসর প্রতিষ্ঠানকে হারানোর পর এসিবি’র সংকট তীব্র হয়েছে বেশি। গত বছর তাদের সবচেয়ে বড় পৃষ্ঠপোষক আলোকজায় গ্রুপ অব কোম্পানিস (এজিসি) চুক্তি বাতিল করে।

মহামারি করোনাভাইরাসের আঘাতের প্রভাবে ভারতীয় প্রতিষ্ঠান ‘টাইকা’ও এসিবির সাথে চুক্তি বাতিল করেছে। ২০২০ সালের শেষ পর্যন্ত আফগানিস্তান ক্রিকেট দলের অ্যাপারেল স্পনসর হিসেবে থাকার চুক্তি ছিল প্রতিষ্ঠানটির।

২০১৬-২৩ চক্রে আইসিসি’র কাছ থেকে প্রায় ৪ কোটি ডলার রাজস্ব পাওয়ার কথা এসিবির। কিন্তু আইসিসির আয় কমে যাওয়ায় এসিবির রাজস্বও কমবে। এ বছর জানুয়ারিতে এসিবি আইসিসি হতে রাজস্ব হিসেবে ২ কোটি ৪০ লাখ ডলার পেয়েছে। খরচ কমানোর জন্য কোচদের বেতনও কেটেছে এসিবি।

আব্দুলরাহিমজাই বলেন, “এসিবির কার্যক্রম সহজে চালানোর জন্য আমরা আইসিসিকে এক মিলিয়ন মার্কিন ডলার দেওয়ার অনুরোধ করেছি।”

এক সংবাদ সম্মেলনে এসিবি সভাপতি ফারহান ইউসেফজাই বলেছেন, “আমরা আইসিসির কাছে আর্থিক সহায়তা চেয়েছি। এটা আমাদের কার্যক্রম কার্যকরভাবে পরিচালনায় সাহায্য করবে।”